অনুপ বিশ্বাসের মদের দোকানে ৩০ হাজার লিটার মদ!

চট্টগ্রাম নগরীর কোতয়ালি থানার ফিরিঙ্গিবাজার এলাকায় একটি মদের দোকানে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব। এসময় ওই দোকান থেকে বিপুল পরিমাণ দেশিয় তৈরি মদসহ ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

দোকানটির মালিক স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যবসায়ী অনুপ বিশ্বাস বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন র‌্যাবের চট্টগ্রাম জোনের উপ অধিনায়ক মেজর এস এম সুদীপ্ত শাহীন। 

ফিশারীঘাট মদের আস্তানায় র‍্যাব-৭ এর অভিযানে ৩০ হাজার লিটার মদ উদ্ধারের পর গা ঢাকা দিয়েছে মদের দোকানের মালিক অনুপ বিশ্বাস ও ইনচার্জ সাগর দাশ।

লাইসেন্সের শর্ত ভেঙ্গে দেশিয় তৈরি মদ সংরক্ষণ বিক্রির অভিযোগে দোকানটিতে অভিযান চালানো হয় বলে জানিয়েছেন মেজর এস এম সুদীপ্ত শাহীন। 

তিনি জানান, রোববার (২২ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৫টায় অভিযান শুরু হয়।  রাত সাড়ে ৮টায় অভিযান শেষ করে র‌্যাবের টিম।

‘দোকানের ম্যানেজারসহ ৪ জনকে আমরা আটক করেছি। বেআইনিভাবে রাখা বিপুল পরিমাণ মদ উদ্ধার করেছি।  অনুপ বিশ্বাসকে আমরা আটক করতে পারিনি।  তাকে বারবার কল করার পরও তিনি আসেননি।  আমরা অনুপ বিশ্বাস ও যারা গ্রেফতার হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করব। ’ বলেন মেজর শাহীন।

ফিরিঙ্গিবাজার এলাকায় দায়িত্বরত পুলিশের একটি সূত্রে জানা গেছে, বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ফিরিঙ্গিবাজার ফিশারিঘাটের মূল ফটকের বিপরীতে অনুপ বিশ্বাসের মদের দোকানটি ঘিরে ফেলে র‌্যাব। তবে দোকানে প্রবেশের সময় তারা প্রতিরোধের মুখে পড়েন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, স্থানীয় নিম্ন আয়ের লোকজনসহ এলাকার কিছু মানুষ এবং উৎসুক শত, শত জনতা এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়।  তারা দোকানে প্রবেশে র‌্যাবকে বাধা দেয়।  পরে র‌্যাবের আরও সদস্য ঘটনাস্থলে আসে।

ওই পুলিশ কর্মকর্তার দাবি, জটলার এক ফাঁকে ভিড়ের মধ্য দিয়ে পালিয়ে যান অনুপ বিশ্বাস। অতিরিক্ত র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থলে আসার পর দোকানে প্রবেশ করেন তারা।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানার জন্য অনুপ বিশ্বাসের মোবাইলে বেশ কয়েকবার ফোন করেও সাড়া পাওয়া যায়নি। 

অনুপ বিশ্বাস গত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পাথরঘাটা ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করে পরাজিত হন।  এসময় অবশ্য আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়ে তিনি ব্যর্থ হন। 

অনুপ বিশ্বাস বঙ্গবন্ধুর নামে গড়ে তোলা একটি সাংস্কৃতিক সংগঠনের চট্টগ্রামে নেতৃত্ব দেন।  এছাড়া চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের যে কোন কর্মসূচিতে তার সরব উপস্থিতি দেখা যায়।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, অভিযান চলাকালে মদের দোকানের ২য় তলায় ছিলো অনুপ বিশ্বাসের মদের দোকানের ইনচার্জ সাগর।

তবে, একটি সূত্র জানিয়েছে ভারতে অনুপ বিশ্বাসের একাধিক বাড়ি রয়েছে। সোমবার (২৬ আগস্ট) সে দেশে ফিরছিলেন।

এদিকে র‍্যাবের অভিযানের পর পরই সাগরকে দ্রুত তার বাসায় যেতে এবং কিছু কাপড় চোপড় নিয়ে দ্রুত বেরিয়ে যেতে দেখেছে স্থানীয়রা।

সাগরের ঘনিষ্ঠ সহযোগী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানায়, সাগর তার বাসা থেকে পাসপোর্ট ও কিছু জামা কাপড় নিয়ে গেছে।

এর আগে রোববার (২৫ আগস্ট) এই বিষয়ে সিপ্লাসটিভি অনুপ বিশ্বাসের মদের আস্তানার ওপর বিস্তারিত উল্লেখ করে বিশেষ রিপোর্ট প্রচার করে। এই রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে অভিযান চালায় র‌্যাব।ইতিপুর্বে কেউ এই মদের দোকানের বিরুদ্ধে ফলাও করে নিউজ প্রচার করেনি৷

এ ব্যাপারে র‌্যাবের জনসংযোগ কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, অভিযানের ব্যাপারে সকালে বিস্তারিত ব্রিফিং করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar