অশ্লীলতা কী তা বুঝেন না নায়িকা পলি

নব্বই দশকের শেষ দিকে ঢাকাই চলচ্চিত্রে চাহিদাসম্পন্ন চিত্রনায়িকাদের অন্যতম পলি। চলচ্চিত্রে এসেই বেশকিছু সিনেমায় অভিনয় করেন। সেসময়েই চলচ্চিত্রে খেতাব পান অশ্লীলতার। তবে পলি অশ্লীলতা বলতে কিছুই বোঝেন না বলে দাবি করেছেন।

তিনি বলেছেন, অশ্লীলতা আসলে কী সেটা আমি বুঝি না। যারা এগুলো বলেন তারা ঠিক বলেন না।

পলি বলেন, আমি বুঝি না চলচ্চিত্রে অশ্লীলতা কী? আমি বুঝি কমার্শিয়াল সিনেমা। একজন প্রযোজক যখন আমাকে কাস্ট করেন তখন আমাকে তার সেই ছবিতে ইনভেস্ট করেন। সেই টাকা ফেরত না পেলে পরবর্তীতে আর সিনেমা বানাবেন না। একটু কমার্শিয়াল না করলে হিট করবে কি করে! আমি অশ্লীল কিছু করিনি, কমার্শিয়াল সিনেমা করেছি।

তিনি আরও বলেন, কমার্শিয়াল সিনেমায়  নাচ,গান, সবই থাকবে। দর্শক বোরিং হবেন না। বিরক্ত হবেন না। আর তখনকার দর্শকের চাহিদা ছিল বিনোদন, একটু ঝাকানাকা চাইত। সিনেমার গানে দর্শক যেন একটু সুরসুরি পায়, রাতের বেলায় নায়িকাকে নিয়ে যেন ভাবে—যেন তারা রাতে শুয়ে চিন্তা করে যে আজ একটা নায়িকা দেখেছি, সিনেমা মানেই এমনটা।
ছোট পোশাক নিয়ে তিনি বলেন, ছোটখাটো পোশাকের বিষয় প্রযোজকের একটা চাপ ছিল। একজন শিল্পী হচ্ছে কাদা মাটি। পরিচালক-প্রযোজকের কথা মতো সিনেমায় অভিনয় করতে হতো। এখানে শিল্পীর কোনও দোষ ছিল না। শিল্পীদের ছোট পোশাকে পড়িয়ে অভিনয় করাতো। যেটা সবাই মনে করতো অশ্লীলতা। আসলে অশ্লীলতা বলতে কিছু করিনি আমরা।
তার সিনেমায় কোনও অশ্লীলতা নেই দাবি করে বলেন, আমার সিনেমাগুলোতে একটা দৃশ্যে নোংড়া দেখাতে পারবেন না। গানে কমার্শিয়াল দৃশ্য ছিল। তবে সিনেমার কাটপিস জুড়ে দেওয়া হতো। আর কাটপিস তো আমাদের কোনও হাত থাকে না। সেই জন্য অনেকে আমাদের অশ্লীল বলে দায়ি করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar