আপন ফুফা ধর্ষণ করল স্কুলছাত্রীকে

প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দেয়ার কথা বলে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করছে আপন ফুপা। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা বাদী হয়ে রোববার রাতে দুইজনের বিরুদ্ধে ধামরাই থানায় মামলা করেছেন।

আসামীরা হলেন- ধামরাইয়ের সূয়াপুরে ঘোড়াকান্দা গ্রামের মৃত হায়দার আলীর ছেলে ও ধর্ষিতার আপন ফুপা আলমগীর হোসেন (৪৫)। মামলার অপর আসামি ওই কিশোরীর প্রেমিক নাহিদ হোসেন (২২)। সে একই গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে।

ভুক্তভোগীর মা বলেন, ‘বুধবার (২১ আগস্ট) প্রেমিক নাহিদের সঙ্গে বিয়ে দেয়ার কথা বলে তার মেয়েকে নিজ বাড়িতে নিয়ে যায় ফুপা আলমগীর। পরে সেখানে তাকে ধর্ষণ করে। এছাড়া নাহিদও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার মেয়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছে।’

অভিযোগকারীর খালা রাবেয়া বেগম বলেন, ঘটনার পর আলমগীর ভুক্তভোগীকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়। দু’দিন পর আবার ফুপা কৌশলে নিয়ে যেতে চাইলে ভুক্তভোগী এই ঘটনা তার মাকে জানায়। এরপর বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বারকে জানালেও তারা কোনো গুরুত্ব দেয়নি। পরে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী ও ধামরাই থানার এস আই আবুল কালাম আজাদ বলেন, ভুক্তভোগী ও তার মা থানায় এসে লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনায় দুইজনকে আসামি করা হয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

তিনি আরো জানান, স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য সোমবার (২৬ আগস্ট) স্কুলছাত্রীকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে পাঠানো হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar