এইচটুওতে মিলল সীসা, গ্রেফতার ৩

রাজধানীর ধানমন্ডির আলোচিত সেই এইচটুও লাউঞ্জে অভিযান চালিয়ে ৭৫৯ গ্রাম নিষিদ্ধ সিসা উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় লাউঞ্জের ৩ কর্মচারীকে গ্রেফতার করা হয়।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর শনিবার রাতে আকস্মিক এই অভিযান চালায়। অভিযানে অধিদফতরের ৫০ জন কর্মকর্তা অংশ নেন।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ অনুযায়ী সীসাকে মাদক হিসেবে উল্লেখ করে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের কর্মকর্তারা জানতে পারে যে, ধানমন্ডি ৭/এ রোডের এইচটুও লাউঞ্জে এখনও নিষিদ্ধ মাদক সীসা বিক্রি হচ্ছে। এরপরই তারা বের হন অভিযানে। তবে অভিযানে গিয়ে এইচটুও’তে ঢুকে তারা কোন সীসার অস্তিত্ব বা পরিবেশনের চিত্র দেখেন নি।

অভিযানে অংশ নেয়া অধিদফতরের ঢাকা মেট্রো অঞ্চলের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ খোরশিদ আলম জাগো নিউজকে বলেন, সীসার অস্তিত্ব না পেয়ে লাউঞ্জের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে যাচাই করা হয়। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, এইচটুও দিনভর সীসা বিক্রি করেছে কিন্তু কোনো একটি সংবাদের ভিত্তিতে হঠাৎ করেই তারা পরিবেশন বন্ধ করে দেয়। ফুটেজ দেখে আবার শুরু হয় অভিযান। তাদের রান্নাঘর থেকে ৭৫০ গ্রাম সীসা উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় তাদের তিন কর্মচারীকে আটক করা হয়েছে। তবে মালিক ও ম্যানেজার পলাতক রয়েছেন।

এ ঘটনায় ধানমন্ডি থানায় লাউঞ্জের মালিক ও ম্যানেজারসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর।

খোরশিদ আলম জাগো নিউজকে বলেন, নতুন আইনে সীসাকে মাদক হিসেবে উল্লেখ করে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। মদ পান করা নিয়ন্ত্রিত, কিন্তু সীসা নিয়ন্ত্রিত নয়। এটা সরাসরি নিষিদ্ধ। তাই কাউকে সীসা গ্রহণ বা পরিবেশনের না করতে বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar