কারারক্ষী নাসির উদ্দিন, আমিনুল ইসলাম ও হাবিবুর রহমান (ছবি- সংগৃহীত)

কারাগারে জামিন বাণিজ্য: বহাল তবিয়তেই ওরা ৩ জন

চট্টগ্রামঃ সম্প্রতি চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে ডিআইজি প্রিজন ফজলুল কবির ও সিনিয়র জেল সুপার মোঃ কামাল হোসেনের যোগদানের পর অনেকটা স্বচ্ছতা ফিরে এলেও বহাল তবিয়তে রয়েছে সেই পুরোনো সিন্ডিকেট।

বন্দিদের জামিনের পর পুনরায় গ্রেফতারের ভয়-ভীতি দেখিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা আদায়ের এই সিন্ডিকেটের অন্যতম সদস্য হচ্ছে- জামিন শাখার দায়িত্বে থাকা কারারক্ষী নাসির উদ্দিন, কারারক্ষী আমিনুল ইসলাম ও কারারক্ষী হাবিবুর রহমান। সম্প্রতি মাদক ও মানি লন্ডারিং মামলায় আটক জেলার সোহেল রানা বিশ্বাসের সিন্ডিকেটের একটি অংশ তারা।

 সূত্রে জানা যায়,  কারাবন্দিদের জিম্মি করে অন্তত ৫ ধাপে আদায় করা হয় লাখ লাখ টাকা। এর মধ্যে রয়েছে- বন্দি বেচা-কেনা, সাক্ষাৎ বাণিজ্য, সিট বাণিজ্য, খাবার বাণিজ্য এবং জামিন বাণিজ্য।

জামিন হওয়ার পর আসামীদের আটকিয়ে রেখে বিভিন্ন হত্যা মামলা, অস্ত্র মামলা, মাদক মামলা কিংবা রাজনৈতিক মামলায় গ্রেফতার দেখানো হবে বলে ভয়ভীতি দেখায় তারা। সেখান হতে পরিবারের সদস্যদের মোবাইল ফোনে ডেকে এনে তাদের কাছ থেকে আদায় করা হয় মোটা অঙ্কের টাকা। আর টাকা আদায়ের এ কাজটির তদারকি করে কয়েদি রাইটার এনাম।

জানা যায়, আটক বন্দিদের আদালত থেকে জামিননামা কারাগারে পৌঁছলে তা নিয়ে বন্দিদের সঙ্গে দেন-দরবার শুরু করেন এ অসাধু কারারক্ষীরা। চাহিদা মতো অর্থ না দিলে পুনরায় থানা পুলিশের কাছে তুলে দেয়ার হুমকি দেয়া হয়। জামিন পাওয়া বন্দির কাছ থেকে ৫ হাজার থেকে লাখ টাকা পর্যন্ত আদায়ের অভিযোগ রয়েছে। জামিন পাওয়া বন্দিরা যদি বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মী হন তবে তো কথাই নেই।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar