কেক খাওয়ানোর প্রলোভনে শিশু ধর্ষণ!

কুড়িগ্রামে কেক খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ১০ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে হাসমত আলী (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে রৌমারী থানা পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

হাসমত আলী জেলার রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের দুবলাবাড়ি গ্রামের মোকছেদ আলীর ছেলে।

সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি-রৌমারী সার্কেল) শহীদ সরোওয়ারদী এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। শিশু ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত অভিযুক্ত হাসমত আলীকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পুলিশ ও ভুক্তভোগির পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে, ১০ বছরের ওই শিশু কন্যাকে পূর্ব পরিচিত হাসমত আলী গত শনিবার কেক খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে একটি কবরস্থানের পাশের জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে।

পরে ঘটনাটি প্রকাশ না করার জন্য শিশুকে ভয়ভীতি দেখায়।

ফলে শিশুটি ভয়ে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পরিবারের কাছে তাৎক্ষণিক ধর্ষণের ঘটনাটি প্রকাশ করেনি। পরে শিশুটির হাটাচলায় অসুস্থবোধ দেখা গেলে শিশুর চাচি একজন স্বাস্থ্যকর্মীকে বাড়িতে ডেকে এনে তাকে দেখান। স্বাস্থ্যকর্মী শিশুটিকে পর্যবেক্ষণ করে বুঝতে পারেন শিশুটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে।

পরে মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে শিশুটিকে রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পরবর্তীতে ধর্ষণের বিষয়টি জানতে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি-রৌমারী সার্কেল) শহীদ সরোওয়ারদী রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিশুটিকে দেখতে যান।

এ সময় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. অনুপ কুমার বিশ্বাস জানান, শিশুটি গুরুতর অসুস্থ। তার যৌনাঙে ক্ষতের সৃষ্টি হওয়ায় প্রস্রাবের সমস্যা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar