ক্রসফায়ারের হুমকিতে চাঁদা আদায়, ওসি প্রিটনের বিরুদ্ধে মামলা

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের বায়েজিদ বোস্তামী থানার বর্তমান ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রিটন সরকার ও সাবেক ওসিসহ ৭ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে চাঁদা চেয়ে ক্রসফায়ারের হুমকির অভিযোগে আদালতে দায়ের করেছেন এক ব্যবসায়ী।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) অতিরিক্ত মূখ্য মহানগর হাকিম মহিউদ্দিন মুরাদের আদালতে মোহাম্মদ ইয়াছিন নামের ওই ব্যবসায়ী মামলাটি দায়ের করেন। আদালত অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনারকে (অর্থ ও প্রশাসন) অভিযোগ তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) মো. কামরুজ্জামান বলেন, ‘মোহাম্মদ ইয়াছিনের অভিযোগ আমলে নিয়ে আদালত বিষয়টি অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অর্থ ও প্রশাসন) স্যারকে তদন্তভার দিয়েছেন।’

বাদির আইনজীবী অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলাম সুমন বলেন, ‘মোহাম্মদ ইয়াছিন চট্টগ্রাম পলিটেকনিক কলেজ এলাকায় রড-সিমেন্টের ব্যবসা করেন। গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর বাদিকে থানায় নিয়ে তখনকার পরিদর্শক (তদন্ত) প্রিটন সরকারের (বর্তমান ওসি) কক্ষে ৫ ঘণ্টা আটকে রেখে ১১ লাখ টাকা আদায় করেন। গত ৪ ফেব্রুয়ারি নগরীর অক্সিজেনের অনন্যা আবাসিক এলাকায় নিয়ে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করার হুমকি দিয়ে আরও ১২ লাখ টাকা আদায় করেন। রেজিস্ট্রি ডাকে পুলিশের মহাপরিদর্শক, কমিশনারসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে বিষয়টি জানিয়েছি। বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) আদালতে সব ডকুমেন্ট জমা দিয়ে অভিযোগ দায়ের করেছি। মাননীয় আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনারকে (অর্থ ও প্রশাসন) প্রতিবেদন দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন।

অভিযুক্ত অপর পাঁচজন হলেন বায়েজিদ থানার উপ-পরিদর্শক মো. আফতাব, সহকারী উপ-পরিদর্শক মো. ইব্রাহিম, মিঠুন নাথ, পুলিশ সদস্য রহমান ও সাইফুল।

বায়েজিদ থানার অভিযুক্ত ওসি প্রিটন সরকার বলেন, ‘এ নামের কোন ব্যক্তিকে আমি চিনি না, আমার ধারণা তিনিও আমাকে চেনেন না, টাকা আদায়ের তো প্রশ্নই আসে না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar