ছবিটি প্রতীকী

প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার গুল্টা আদিবাসী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় তাড়াশ থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীর ওই ছাত্রী দুই বছর আগে গুল্টা আদিবাসী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণিতে ভর্তি হয়। ভর্তির পর অন্য ছাত্রীদের সঙ্গে সে বিদ্যালয়ের হোস্টেলে থেকে পড়ালেখা করছিল। মাস দুই আগে হোস্টেলে খাওয়া-দাওয়ার সমস্যা দেখা দেয়। এ সময় মেয়েটির বাবা তাকে রাজশাহীতে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে চান।

কিন্তু প্রধান শিক্ষক আবদুস সাত্তার মেয়েটিকে বিদ্যালয়ে রাখার জন্য অনুরোধ করেন। তিনি তার বাড়ি থেকে ওই ছাত্রীর খাবারের ব্যবস্থা করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। পরে মেয়েটির বাবা তাকে বিদ্যালয়ে রেখে যান। ওই ছাত্রী বর্তমানে নবম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত।

সে জানায়, গত শুক্রবার প্রধান শিক্ষক আবদুস সাত্তারের স্ত্রী তার বাবার বাড়িতে বেড়াতে যান। এ সময় তিনি মেয়েটিকে দুপুরে রান্না করে খেয়ে রাতের জন্য খাবার নিয়ে যেতে বলেন। মেয়েটি দুপুরে আবদুস সাত্তারের বাড়িতে রান্না করছিল। এক পর্যায়ে সাত্তার মেয়েটিকে তার ঘরে ডেকে নেন। পরে বিভিন্ন অশ্নীল কথাবার্তার পাশাপাশি মেয়েটির শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন।

এতে ভীত হয়ে মেয়েটি সেখান থেকে বেরিয়ে পাশেই তার এক বান্ধবীর বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পরে মেয়েটি তার বাবাকে ফোন করে ঘটনা জানায়। সকালে তার বাবা গুল্টা গ্রামে আসেন। এরপর তিনি মেয়েকে নিয়ে থানায় অভিযোগ করেন।

এ বিষয়ে জানতে প্রধান শিক্ষক আবদুস সাত্তারের মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তা বন্ধ পাওয়া গেছে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোতালেব হোসেন শিশির বলেন, তিনি বিষয়টি শুনেছেন। তবে তিনি বাইরে থাকায় বিস্তারিত বলতে পারছেন না।

তাড়াশ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar