‘মধু ভর্তি মেয়ে লাগে’, ছাত্রলীগ নেত্রীর বিস্ফোরক পোস্ট

দীর্ঘ এক বছর প্রতীক্ষার অবসান করে ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেয়া হয়েছে। সোমবার ৩০১ সদস্য বিশিষ্টি এ কমিটি প্রকাশ করা হয়।

এতে আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা বা সংবাদ বিজ্ঞপ্তি না দিলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ কমিটি ছড়িয়ে পড়েছে।

সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ১১ মে এ কমিটিতে স্বাক্ষর করেন।

কমিটি দেয়ার পরপরই পদবঞ্চিতরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তারা রাতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ করেন। পরে মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলন করতে গেলে, তাদের ওপর হামলা করা হয়। এতে ছাত্রলীগের নারী কর্মীসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

সোশ্যাল মিডিয়াতেও এই কমিটি নিয়ে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। তারা অভিযোগ করছেন, টাকা নিয়ে অছাত্র, বিবাহিতদের কমিটিতে পদ দেয়া হয়েছে। আর এসব অভিযোগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও গোলাম রাব্বানীর দিকে।

এমনই এক ছাত্রলীগ নেত্রী জারিন দিয়া। তিনি ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য। গণিত বিভাগ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকও ছিলেন।

পদ না পেয়ে এই নেত্রী মঙ্গলবার ফেসবুকে বিস্ফোরক পোস্ট দিয়েছেন। সেখানে তিনি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের উদ্দেশ্যে লেখেন, ‘রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং গোলাম রব্বানী ভাই আপনাদের মধু ভর্তি মেয়ে লাগে। বড় বড় প্রোগ্রামে মেয়েদের মুখ না দেখলে তো আপনাদের মন ভরতো না। শোভন ভাই আপনি একদিন আমাকে সবার সামনে বলছিলেন কি রে চেহারা সুন্দর আছে; তো সেজেগুজে আসতে পার না! আমি সেজেগুজে আসতে পারি নাই দেখে আমাকে কমিটিতে রাখলেন না??’

জারিন দিয়া লেখেন, ‘আপনারা যেসব মেয়েদের কমিটিতে রেখেছেন তারা কয়দিন থেকে রাজনীতি করে! আপা কি জানেন?? আর নিজে বিবাহিত বলে কমিটিতে দুনিয়ার বিবাহিত মেয়েদের রেখেছেন!!!’

সাধারণ সম্পাদক রাব্বানীকে উদ্দেশ্য করে তিনি লেখেন, ‘আর গোলাম রাব্বানি ভাই আমাকে সবার সামনে বলছিলেন দুইদিনের মেয়ে কেমনে পোস্ট পাইছো বুঝি নাই! কয়জনের বেডে গেছো NSI রিপোর্ট করলেই জানা যাবে। মনে আছে গোলাম রাব্বানী ভাই??? আমি তখন আপনার যোগ্য কথার জবাব দিয়েছিলাম। আজ তার শোধ নিলেন? অনেক তথ্য অপেক্ষা করছে আপনাদের জন্যে।’

তিনি আরও লেখেন, ‘এই বিবাহিত বিতর্কিত কমিটি মানি না; মানব না…আমার শ্রমের মূল্য দিতে হবে আপনাদের।’

এই অভিযোগের বিষয়ে কোনো উপযুক্ত প্রমাণ থাকলে তা জারিনকে উপস্থাপন করতে বলেছেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। তা না হলে তার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করবেন বলেও জানান তিনি।

গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘জারিন দিয়ার স্ট্যাটাস দেখেছি। যেখানে গোয়েন্দা সংস্থা পেলেন না, সেখানে তিনি এসব তথ্য কোথায় পেলেন? আমি তাকে ধরব। মানহানি করার জবাব চাইব।’

তিনি আরও বলেন, ‘জারিন রাজনীতি না করেও গত কমিটিতে কেন্দ্রীয় সদস্য পদ পেয়েছে, এটার প্রমাণ আমার কাছে আছে। কোনো দিন এই মেয়েকে আমি রাজনীতিতে দেখিনি। প্রয়োজনে আমি তার বিরুদ্ধে আইনের আশ্রয় নেব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar