তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ

সমালোচনাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখবেন তথ্যমন্ত্রী

গঠনমূলক সমালোচনাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখবেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

রোববার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন সংস্থা প্রধানদের সঙ্গে মতবিনিময়ের আগে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, গঠনমূলক সমালোচনা অবশ্যই ইতিবাচক। সমালোচনা পথচলাকে এগিয়ে নেয়। সমালোচনাকে সমাদৃত করার সংস্কৃতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চালু করেছেন। তবে অন্ধ আর একপেষে সামালোচনা কখনো কল্যাণকর হয় না।

তিনি বলেন, ‘আমরা সব ধরনের সমালোচনাকে সমাদৃত করি। আমি যখন পরিবেশমন্ত্রী ছিলাম তখন আমার মন্ত্রণালয় নিয়ে ডেইলি স্টার অনেক সমালোচনা করেছে। এমনকি মন্ত্রীর কার্টুন ছাপিয়েছে। কিন্তু আমরা তাদের পরিবেশ পদক দিয়েছি। অনেক সমালোচনার পরেও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন বাপাকেও পুরস্কৃত করেছি।’

পেশাগত দায়িত্ব পালনে আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট নিয়ে সাংবাদিকদের আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। এই সরকার গণমাধ্যমবান্ধব। এ নিয়ে সাংবাদিকদের মধ্যে যাতে আতঙ্ক না থাকে সেই লক্ষ্যে আমি কাজ করবো।’

হাছান মাহমুদ বলেন, একটি পক্ষ দেশকে পেছনের দিকে টেনে ধরার চেষ্টা করছে। আমি মনে করি দেশের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্রই কাজে আসবে না।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার জাদুকরি নেতৃত্বের কারণে দেশ আজ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। দেশের গ্রামগুলো এখন শহরের ছোঁয়া পেয়েছে। এবার আওয়ামী লীগের প্রধান অঙ্গীকার দেশের গ্রামগুলোকে শহরে পরিণত করা। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আমরা সেই অঙ্গীকার পূরণ করব।

তথ্য সচিব আব্দুল মালেক এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক নারায়ণ চন্দ্র শীল, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক হারুন অর রশীদ, প্রধান তথ্য অফিসার কামরুন্নাহার, পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীর প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar