এ বছর ঘর ভাঙলো যেসব তারকার

জীবন যত আধুনিক হচ্ছে ততই বাড়ছে সম্পর্ক ভাঙার প্রবণতা। দেখা দিচ্ছে ডিভোর্স। সুন্দরভাবে গড়ে ওঠা সম্পর্কগুলোর এমন চরম পরিণতি কেন ঘটছে এমন প্রশ্ন চিরকালই থাকবে। কিন্তু উত্তর মিলবে না। আর সংসার ভাঙার এই প্রবণতা বর্তমানে শোবিজ জগতের তারকাদের মধ্যেই বেশি। এখানে এমন অনেকে আছেন যারা অনেক বছর সংসার করার পরও এই পথে হেটেছেন। আবার অনেকেই আছেন যাদের সংসার ভেঙেছে খুব অল্প দিনেই। ২০১৮ সালে যারা বিচ্ছেদের পথে হেটেছেন তাদের খবর দেয়া হল: 

– শেষ পর্যন্ত ভেঙেই গেল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের সংসার। আইন অনুযায়ী আজ থেকে আর স্বামী-স্ত্রী নন তারা। ২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর অপু বিশ্বাসকে আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের মাধ্যমে তালাক নোটিশ পাঠান শাকিব খান। ওইদিন থেকে আইন অনুযায়ী তিনমাস অর্থাৎ ৯০ দিন সময় ছিল এই তালাক কার্যকর হতে। ২২ ফেব্রুয়ারি পূর্ণ হলো তিন মাস। সে হিসেবে তারা এ বছর থেকে আর স্বামী স্ত্রী রইলেন না। ২০০৮ সালের ১৮ই এপ্রিল বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হন ঢাকাই ছবির হিট জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। ২০১৬ সালের ২৭শে সেপ্টেম্বর জন্ম হয় তাদের সন্তান আব্রাম খান জয়ের।

– বড় পর্দায় অল্প বিস্তর আর ছোট পর্দায় অনেক জনপ্রিয়তাকে তুচ্ছ করে আড়ালে গিয়েছিলেন অভিনেত্রী বিন্দু। উদ্দেশ্য, সংসার ধর্ম পালন। তাই তার দেখা নেই কোথাও। ২০১৪ সালের ২৪ অক্টোবর রাতে বিন্দু বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন ব্যবসায়ী আসিফ সালাহউদ্দিন মালিকের সঙ্গে। এরপর থেকেই রয়েছেন আড়ালে। ২০১৬ সালে ১৪ ফেব্রুয়ারিতে তিনি হঠাৎ দেখা দেন নিজের বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজনে। এরপর সর্বশেষ তাকে রাজধানীর আর্মি গলফ ক্লাবে দেখা গিয়েছিলো গেল বছরের পহেলা বৈশাখের আয়োজনে। কিন্তু এ বছরের শুরুর দিকে রটে ডিভোর্স হয়েছে বিন্দুর। এ নিয়ে কেউ মুখ না খুললেও ঘনিষ্ঠজন সত্যতা স্বীকার করেন। তবে ঠিক কবে ডিভোর্স হয়েছে তা জানা যায়নি।

– ৯ জানুয়ারি  বিবাহ বিচ্ছেদ হয় বাপ্পা মজুমদার ও চাদনীর। গুঞ্জন শোনা গেলেও মুখ খোলেননি তারা। অভিনেত্রী-সঞ্চালক তানিয়া হোসাইনের সঙ্গে বাগদানের সূত্র ধরে বাপ্পা জানালেন জানুয়ারিতে চাঁদনীর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে।

– মে মাসের শেষের দিকে নাদিয়া মীম ও সাফয়াত চয়নের বিবাহবিচ্ছেদ হয়।  ২০১৬ সালের ২৮ এপ্রিল দুই পরিবারের সম্মতিতে নাদিয়া ও সাফায়াতের বিয়ে হয়। এর আগে ছয় মাসের প্রেমের সম্পর্ক ছিল তাদের। বিবাহিত জীবনের দুই বছর পূর্ণ হতে না হতেই ভাঙলো তাদের ঘর। বয়সের ব্যবধানের কারণে তাদের দুজনের মধ্যে বিয়ের পর থেকে মতের মিল হচ্ছিল না বলে জানা যায়। যার ফলে দুজন ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নেন। এই প্রসঙ্গে নাদিয়া বলেন, ওর বয়স ৩০ আমার ২১। আমাদের বয়সের বেশ বড় একটা গ্যাপ আছে।

– ২১ মে ফারজানুল হকের সঙ্গে তাসনুভার তিশার বিবাহবিচ্ছেদের সব আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে। ফারজানুল ও তিশার ঘরে একটি পুত্রসন্তান আছে। তার নাম আনুশ। জানা গেছে, আনুশ এখন আছে বাবার কাছে। ২০১৪ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর তাসনুভা তিশা ভালোবেসে বিয়ে করেন ফারজানুল হককে। শুরুতে গোপন থাকলেও তিশা সেই বিয়ের খবর প্রকাশ করেন পরের বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে। ৪ বছরের মাথায় জানা গেল, তিশা ও ফারজানুল হকের ভালোবাসার সেই বিয়ে টিকল না।

– বছর শেষে তাই ঘর ভাঙার খবর দিলেন লাক্স তারকা চৈতির। গণমাধ্যমকে নিজেই জানালেন তার সংসার ভাঙার খবর। গত ৮ নভেম্বর শাওনের সঙ্গে সংসার জীবনের ইতি টানেন বলে জানিয়েছেন তিনি। চৈতি ২০১৫ সালের অক্টোবরে ভিন্ন ধর্মালম্বী শাওন রায়কে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন। শাওন পেশায় একজন গ্রাফিক ডিজাইনার ও থ্রিডি অ্যানিমেটর। চৈতির পুরো নাম ইসরাত জাহান চৈতি। ২০০৮ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar