‘সরকারি দল নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে দিচ্ছে না’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সরকারি দল বিএনপি দলীয় প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। মঙ্গলবার বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস এবং দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী পৃথক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন।

এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা আব্বাস বলেন, সরকার বিএনপিকে নির্বাচনে যেতে দিতে চায় না। নির্বাচন থেকে বিএনপিকে দূরে রাখতে চায় সরকার। নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে দেয়া হচ্ছে না। পদে পদে হামলা করছে। আমাদের নেতাকর্মীদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে।

এই সময় নিজে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলেও দাবি করেন ঢাকা ৮ আসন থেকে ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচন করতে যাওয়া বিএনপি দলীয় এই সাবেক মন্ত্রী।

অপরদিকে নয়াপল্টনে সংবাদ সম্মেলনে দলটির মুখপাত্র রহুল কবির রিজভী অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দের পর প্রচারণা শুরুর দিনেই বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর সশস্ত্র আক্রমণ শুরু করেছে আওয়ামী সন্ত্রাসী ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। বিভিন্নস্থানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থীদের প্রচারণার মাইক ভাংচুর এবং বিএনপির কার্যালয়ে হামলা ও ভাংচুর করেছে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতেই আওয়ামী সন্ত্রাসীরা বিএনপি নেতা-কর্মীদের উপর গুলি করে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করে রক্তাক্ত করেছে।

রিজভী আরো অভিযোগ করেন, প্রচারণার শুরুতেই নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে ঢাক-ঢোল পিটিয়ে আইন শৃঙ্ঘলা বাহিনীর ছত্রছায়ায় মিছিল সমাবেশ করেছে আওয়ামী লীগ। এ মিছিল থেকে তারা রাস্তার ধারে বিএনপির অফিস দেখলেই সেই অফিসে হামলা চালিয়ে তছনছ করেছে।

নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হলেও রাজধানীসহ সারাদেশে পুলিশী তাণ্ডব থামছেই না বলেও অভিযোগ করেন তিনি। বিএনপি নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি হামলা, গ্রেফতার ও গুম বন্ধ হচ্ছে না। পোশাকে ও সাদা পোশাকে পুলিশ এখন ভয়ংকর আতংকের নাম। নির্বাচন কমিশন নির্বাচনী প্রচারণার ন্যূনতম পরিবেশ তৈরি করতে ব্যর্থ হওয়ায় এবং আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উপর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠিত না করতে পারায় এসব হামলা হচ্ছে। সরব এবং নিরব সন্ত্রাসে জনগণের উদ্বেগ ও আতংক কাটছে না।

সংবাদ সম্মেলনে রিজভী আরো বলেন, আমরা বিভিন্ন স্থান থেকে জানতে পারছি-উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা প্রিজাইডিং ও সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারদের কাছ থেকে ব্ল্যাংক রেজাল্ট শীটে স্বাক্ষর নিয়ে রাখছেন।

তবে যত আক্রমণ করা হোক জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সকল বাধা উপক্ষো করে মাঠে নামতে হবে জানিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, ধানের শীষের প্রার্থীদের বিজয়ী করতে হবে। জনগণ তাদের পছন্দের প্রার্থীদের ভোট দিতে পারলে ধানের শীষের বিজয় ঠেকানো যাবে না।

খালেদা জিয়ার নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে বলতে গিয়ে রিজভী বলেন, সরকারের কারসাজিতেই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দ্বিধা বিভক্তির রায়। সরকারি দল চায় না বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচন করুক। কারণ তারা তাকে ভয় পায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Skip to toolbar